মেদিনীপুর জেলায় ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে যশের। আজই সমস্ত ব্লকে মিটিং করা হচ্ছে। জেলাপ্রশাসনের তরফে একাধিক ভার্চুয়াল মিটিং করা হয়েছে ইযস নিয়ে।

0
7

ধেয়ে আসছে ইয়স । পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে যশের। আজই সমস্ত ব্লকে মিটিং করা হচ্ছে। জেলাপ্রশাসনের তরফে একাধিক ভার্চুয়াল মিটিং করা হয়েছে ইযস নিয়ে। জেলা প্রশাসন সুত্রে খবর, জেলার ১৩টি ফ্লাড সেন্টার তৈরি রাখা হচ্ছে, রেসকিউ সেন্টার হিসাবে তৈরি রাখা হচ্ছে জেলার স্কুল গুলিকে। সোমবার থেকেই কংসাবতী, সুবর্ণরেখা নদী তীরবর্তী এলাকাগুলি থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হবে গ্রামবাসীদের। প্রসঙ্গত, আমফান, বুলবুলের ব্যাপক প্রভাব পড়েছিলো পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার মোহনপুর, দাঁতন, নারায়ণগড়, সবং, ডেবরা, ঘাটাল ও দাসপুরের বিস্তির্ণ অঞ্চলে। এইগুলিতেই বাড়তি নজরদারির ব্যাবস্থা রাখা হচ্ছে। তৈরি রাখা হচ্ছে NDRF টিম। জেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার থেকেই বিভিন্ন ব্লকে পাঠানো হবে শুকনো খাবার, ত্রীপল। করোনা আবহের কথা মাথায় রেখেই মাস্ক, স্যানিটাইজেশান ব্যাবস্থাও রাখা হচ্ছে জেলা প্রশাসনের তরফে। সবমিলিয়ে ইযশের প্রকোপ থেকে বাঁচতে চূড়ান্ত তৎপর জেলা প্রশাসন। জেলার বিভিন্ন ব্লকে পাঠানো হচ্ছে ত্রিপল

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে