মালদার মানিকচকের কামালপুর এলাকায় বৃদ্ধা মা করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তাঁকে বাড়িতে ফেলে গেলেন ছেলে ও পরিবারের অন্য সদস্যরা।

0
13

চারদিন ধরে অসুস্থ বৃদ্ধ দম্পতি। গায়ে জ্বর ও কাশি। করোনার উপসর্গ শরীরে। আর তাতেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে গ্রামজুড়ে। বৃদ্ধা দম্পতিকে ছেড়ে পালিয়েছে তাঁর পরিবার। শুধু তাই নয় পাশে এসে দাড়ায় নি গ্রামের কেউ। অবশেষে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক খবর পেয়ে বৃদ্ধ দম্পতির পাশে এসে দাড়ালেন। চিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন। ঘটনাটি মালদা জেলার মানিকচক ব্লকের কামালপুর গ্রামের।
বিগত সাতদিন আগে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তার ছেলে সুরেশ সাহার। তারপর থেকেই জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভুগছিলেন বৃদ্ধ দম্পতি। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেন নি। পরিবারের সদস্যরাও বৃদ্ধ দম্পতিকে ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে। গ্রামের পাড়া-প্রতিবেশীরা কেউ দেখতে আসেননি। শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। এক আশা কর্মীর মাধ্যমে খবর পৌছায় ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তরে। করোনা পরীক্ষা করা হয়। বৃদ্ধার রিপোর্ট পজিটিভ হয়। বৃদ্ধাকে কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য গ্রামে অ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হয়। কিন্তু কেউ বৃদ্ধাকে অ্যাম্বুলেন্সেও তুলে দিতে এগিয়ে আসেন নি কোন গ্রামবাসী। অবশেষে ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক হেম নারায়ন ঝা গ্রামে পৌছে বৃদ্ধাকে নিজের হাতে তুলে উন্নত চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠান। বৃদ্ধার স্বামীও ঠিক একই ভাবে অসুস্থ অবস্থায় পড়ে রয়েছে ঘরের বারান্দায় । কিন্তু তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট না আসায় তাকে ঘরে রাখা হয়েছে পরবর্তীতে তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্টে যদি তিনি আক্রান্ত থাকেন তাহলে তাকেও মালদায় পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে