কলকাতাবাসীর আমফানের মতো আতঙ্কে থাকার কারণ নেই, জানাল আবহাওয়া অফিস

0
8

ভারী বৃষ্টিপাত হলেও কলকাতায় পুনরাবৃত্তি হবে আমফানের মতো পরিস্থিতি, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের আছড়ে পড়ার প্রাক্কালে এমনই স্বস্তির খবর শোনাল আবহাওয়া অফিস। মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিক সম্মেলনে পূর্বাঞ্চলীয় আবহাওয়া কেন্দ্রের ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, কলকাতায় আমফানের পুনরাবৃত্তি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তাই কলকাতাবাসীর আমফানের মতো আতঙ্কে থাকার কারণ নেই। তবে কলকাতায় ৭০-৮০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় গতিবেগে ঝড় ও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।তবে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়া ইয়াসের প্রভাব ভালোমতোই পড়তে চলেছে বাংলায়। পূর্ব মেদিনীপুর ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা এই দুটি জেলা সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এমনিতেই ঘূর্ণিঝড়ের ফলে সমুদ্রের জলোচ্ছ্বাস দেখা যাবে, তার পাশাপাশি জোয়ারের ফলে এই দুই জেলাতেই প্রভাব পড়বে। পূর্ব মেদিনীপুরে ২ থেকে ৪ মিটার ও দক্ষিণ ২৪ পরগণায় ২ মিটার পর্যন্ত জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা। পূর্ব মেদিনীপুর কাল ভোরের ৯০-১২০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় ঝড় বইতে পারে। আর দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৮০-৯০ কিমি প্রতি ঘণ্টায় ঝড় বওয়ার আশঙ্কা।কাল সকালে ওড়িশার ধামড়ার কাছে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় পৌঁছে যাবে। বালেশ্বরের দক্ষিণ দিক থেকে অতিক্রম করবে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস। যার ফলে পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলাতেই ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টি হবে। দুই মেদিনীপুরের পাশাপাশি ঝাড়গ্রামেও অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস। ঝড়ের দাপটে কাঁচা বাড়ি ভেঙে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকা প্লাবিত হতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে