করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে এবছরও স্থগিত মাহেশের রথযাত্রা পাশাপাশি স্থগিত হতে পারে গুপ্তিপাড়ার রথযাত্রাও ।

0
18

করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের কথা মাথায় রেখেই এবারেও স্থগিত রাখা হল মাহেশের রথযাত্রা । শ্রীরামপুর মাহেশ জগন্নাথ মন্দির ট্রাস্টি বোর্ড ও প্রশাসন মিলিত ভাবেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৷ এবছর মাহেশের রথযাত্রা ৬২৫ বছরে পদার্পন করবে । ট্রাস্টি বোর্ড ও প্রশাসনের দাবি মাহেশের রথযাত্রায় লক্ষাধিক ভক্তের সমাগম হয় । বর্তমান পরিস্থিতিতে এমনটা ঘটলে করোনা সংক্রমণ আরও বাড়বে, তাই আগামী ১২ জুলাই রথযাত্রা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷ ইতিহাস থেকে জানা যায় মাহেশের রথযাত্রা পুরীর পর ভারতের দ্বিতীয় প্রাচীনতম রথযাত্রা । গত বছরের মত এবারেও মন্দিরের ভিতরেই রথযাত্রার উৎসব পালন করার কথা ভাবা হচ্ছে ৷ এবিষয়ে মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ডের তরফে জানা গেছে সোমবার মন্দিরের বোর্ড মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে গতবারের মত এবছরও রথের চাকা ঘুরবে না । যে হারে করোনার সংক্রমণ ছড়াচ্ছে, তাতে মাহেশের রথযাত্রা হলে লক্ষ লক্ষ মানুষের ভিড়ে সামাজিক দূরত্ব বিধি বজায় থাকবে না । তাই মানুষ এবং সমাজের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে । গত বছরের মতোই এবারেও রথের চারপাশে নারায়ণ শিলা নিয়ে সাত পাক প্রদক্ষিণ করার পর পদব্রজে সেই নারায়ণ শিলা মাহেশের জগন্নাথ বাড়ি থেকে মাসির বাড়ি নিয়ে যাওয়া হবে । আর প্রভু জগন্নাথ দেব নারায়ণেরই রূপ হওয়ার কারণে সেই নারায়ণ শিলা মাসির বাড়ি আটদিন রেখে পুজো করা হবে । উল্টো রথের দিন আবার তা মন্দিরে ফিরিয়ে আনা হবে ৷ অপরদিকে এই আটদিন প্রভু জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রার বিগ্রহ জগন্নাথ মন্দিরের পাশে একটি অস্থায়ী মাসির বাড়ি করে সেখানে রাখা হবে । পাশাপাশি মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরের ট্রাস্টি বোর্ডের তরফে এও জানানো হয়েছে আগামী ২৪ জুন মন্দিরের বাইরে স্নানপীড়ির মাঠের বদলে মাহেশ জগন্নাথ মন্দিরের ভিতরেই স্নানযাত্রার অনুষ্ঠান করা হবে । অন্যদিকে হুগলিতে মাহেশের পাশাপাশি গুপ্তিপাড়ার রথও বিখ্যাত এবং প্রায় তিনশো বছরের প্রাচীন । এবছর করোনার কারণে এখানেও রথযাত্রা বন্ধ রাখার চিন্তা ভাবনা চলছে ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে