২০০৭ সালের পর ২০২১, ১৪ বছর পর নন্দীগ্রামে এসে রাজনৈতিক আক্রান্তদের সাথে কথা বলার পর আবারও রাজ্য সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ রাজ্যপালের ।

0
19

সেই ২০০৭ সালে বাম জামানায় রাজনৈতিক কারণে আক্রান্ত তৃণমূল কর্মীদের সাথে দেখা করে কথা বলতে নন্দীগ্রামে এসেছিলেন তৎকালীন রাজ্যপাল গোপালকৃষ্ণ গান্ধী, তার ১৪ বছর পর ২০২১ সালে আবারও সেই নন্দীগ্রামে এবার তৃণমূলীদের হাতে রাজনৈতিক কারণে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীদের সাথে দেখা করে কথা বলতে এলেন বর্তমান রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় । এদিন বিএসএফের হেলিকপ্টারে নন্দীগ্রামের হরিপুর হেলিপ্যাডে সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে নামেন রাজ্যপাল । সেখানেই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী । এদিন রাজ্যপাল দক্ষিণ কেন্দামারির শ্যামাসুন্দরী চক, বঙ্কিম মোড়, চিলাগ্রাম, নন্দীগ্রাম বাজার, টাউন ক্লাব ও সংলগ্ন এলাকায় গিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি ঘুরে দেখার পাশাপাশি তাদের সাথে কথাও বলেন । এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রাজ্যপাল বলেন, তিনি রাজ্যের প্রথম নাগরিক হিসাবে করজোড়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে নিবেদন জানাচ্ছেন তিনি(মুখ্যমন্ত্রী) যেন করোনার সাথে লড়াইয়ের পাশাপাশি ভোট পরবর্তী এই হিংসার বিরুদ্ধেও লড়াই করেন । মাথায় হাত দিয়ে বসে না থেকে ভোট পরবর্তী এই হিংসার শিকার হাজার হাজার মানুষের দুঃখ, কষ্ট বোঝার চেষ্টা করেন । তিনি এদিন বলেন, ভারত এর আগে কোন দিন নিজের পছন্দ মত দলের প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার জন্য এত ভয়ঙ্কর ভোট পরবর্তী হিংসার ছবি দেখে নি । এমনকি এদিন তিনি কটাক্ষ করে বলেন, যারা দুস্কৃতি বোম মেরে লোকের ঘরবাড়ি ভাংচুর করেছে, মেয়ে, বউদের উপর অত্যাচার চালিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নিয়েছেন, বা যারা আহত, ঘরছাড়া তাদের ক্ষতিপূরণের জন্য মুখ্যমন্ত্রী কি পদক্ষেপ নিয়েছেন তাও তার(রাজ্যপালের) চোখে পরে নি । পাশাপাশি অত্যাচারিতদের সাথে কথা বলে ও তাদের পরিস্থিতি দেখে তার ভয়ে, আতঙ্কে বুক কেঁপে উঠছে বলেও এদিন রাজ্যপাল জানান ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে