শান্তিপুরে দুই দিনের ব্যবধানে ফের দুষ্কৃতীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হলেন এক যুবক

0
12

ফের দুষ্কৃতীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হলেন এক যুবক। মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে পরপর একই ধরনের দুষ্কৃতী হামলার ঘটনায় রীতিমতো আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে নদীয়ার শান্তিপুরে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা আনুমানিক আটটা নাগাদ শান্তিপুর পৌরসভার সতেরো নম্বর ওয়ার্ডের পোড়াডাঙ্গা পাড়া এলাকার বাসিন্দা আঠাশ বছর বয়সী কানাই হরিজন’ তাঁর স্ত্রীকে সাথে নিয়ে এলাকার একটি দোকানে কেনাকাটা করতে যাচ্ছিলেন। সেই সময় কয়েকজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী অতর্কিতভাবে তাঁর ওপর হামলা চালায়। স্ত্রীর সামনেই ধারালো অস্ত্রের দ্বারা এলোপাথাড়ি কোপানো হয় ওই যুবককে বলে অভিযোগ আক্রান্তের স্ত্রী স্বপ্না হরিজনের। এরপর রক্তাক্ত অবস্থায় সংজ্ঞা হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন কানাই । আক্রান্ত ওই যুবককে স্ত্রীর আর্তনাদ শুনে এলাকার স্থানীয় মানুষজন বেরিয়ে এলে দুষ্কৃতীরা ঘটনাস্থল ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা রক্তাক্ত অবস্থায় কানাই কে উদ্ধার করে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতলে নিয়ে যায়। বর্তমানে সে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় শান্তিপুর থানার পুলিশ। দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় জুয়া সাট্টার মত অবৈধ কার্যকলাপের রমরমা কারবার চলার কারণেই এলাকাটি দুষ্কৃতীদের মুক্তাঞ্চল হয়ে উঠেছে,যার ফলে দিনে-দুপুরে বোমাবাজির মতো ঘটনাও ঘটে এলাকাজুড়ে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। সবকিছু জেনে বুঝেও স্থানীয় প্রশাসনের ভূমিকা নির্বিকার বলেও অভিযোগ তাদের। এই দিন কানাই হরিজনের উপর হামলার বিষয়ে ইতিমধ্যেই স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত কানাই এর পরিবার।এই ঘটনার এক দিন আগে আঠারো নম্বর ওয়ার্ডের হরিজন সেট এলাকার রাজ দেবনাথ নামের এক যুবককে লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারার পর ধারালো অস্ত্র দ্বারা শরীরের একাধিক জায়গায় আঘাত করে দুষ্কৃতীরা। তার প্রভাব কাটতে না কাটতে পুনরায় শান্তিপুরের বুকে এই ধরনের সশস্ত্র দুষ্কৃতী তাণ্ডব রীতিমতো আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছে সমগ্র এলাকাজুড়ে। ঘটনায় জড়িত দের খোঁজে তল্লাশি শুরু করার পাশাপাশি সম্পূর্ণ বিষয়টির তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে