মুখার্জি পরিবারের অন্নপূর্ণা পুজোয় হাজির নেপালের রাষ্ট্রদূত ।

0
50

প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত সুপ্রীম কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী জয়দীপ মুখার্জির বাড়ীতে অনুষ্ঠিত হল রাজ রাজেশ্বরী শ্রী শ্রী অন্নপূর্ণা পূজা । এদিন সকালে অন্নপূর্ণা মায়ের সমস্ত পুজো শেষ হওয়ার পর বিকালে বিশিষ্ট জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞ সুবীর বসুকে সঙ্গে নিয়ে জয়দীপ বাবু এদিন অন্নপূর্ণা পূজার হোম করেন । এর পাশাপাশি করা হচ্ছে নবরাত্রি ব্রত উদযাপন ও শ্রীশ্রী চন্ডী সপ্তসতী মহাযজ্ঞ । আগামীকাল রাম নবমীর পূজা পাঠও করা হবে জানান জয়দীপ বাবু জানান ।  প্রসঙ্গত, গত এবার মুখার্জির বাড়ীর রাজ রাজেশ্বরী শ্রী শ্রী অন্নপূর্ণা পূজার আনুষ্ঠানিক শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তারকেশ্বরের মোহন্ত মহারাজ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলা সিনেমার স্বর্ণযুগের বিশিষ্ট অভিনেত্রী মাধবী । এছাড়াও এবারে উপস্থিত ছিলেন অভিনেত্রী শকুন্তলা বড়ুয়া, সুপ্রীম কোর্টের প্রাক্তণ বিচারপতি কে জি বালাকৃষ্ণান, মানবাধিকার কমিশনের জ্যোতিকা কার্লা সহ বহু বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা । জয়দীপ বাবু আরও বলেন, এবছর এই পুজো ৮৩ তম বর্ষে পদার্পণ করলেও মুর্তি এনে বা প্রতিমা পুজোর এটি ৩৩ তম বর্ষ । প্রথমে ঘটে এই পুজোর সূচনা করেন তার ঠাকুমা কমলারানী মুখার্জি । এরপর মুর্তি এনে প্রতিমা পুজো শুরু করেন তার বাবা প্রয়াত শৈলেন্দ্রনাথ মুখার্জি এবং মাতামহী শেফালিকা সরকার । বর্তমানে তিনি ও তার মা সেই ধারা বজায় রেখেই মুর্তি এনেই পুজো করে চলেছেন । পাশাপাশি এদিন রাতে উপস্থিত হন নেপালের রাষ্ট্রদূত । এছাড়াও এই কয়েকদিন এই মুখার্জি বাড়িতে বহু বিশিষ্ট অভিনেত্রী ও অভিনেতা যেমন আসেন, তেমনই উপস্থিত থাকেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের বিভিন্ন মঠ ও মন্দিরের মহন্ত মহারাজ, সাধু সন্যাসী, প্রণম্য ধর্মগুরু, পুরোহিত সহ বহু বিশিষ্ট জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞ এবং ভারতে নিযুক্ত নেপাল, জাপান সহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা এবং সুপ্রীম কোর্ট ও কলকাতা হাইকোর্টের বিভিন্ন প্রাক্তণ ও বর্তমান বিচারপতি ও আইনজীবীরাও । এদিন জয়দীপ বাবু বলেন, নামে মুখার্জি পরিবারের অন্নপূর্ণা পুজো হলেওবর্তমানে তা জাতি, ধর্ম, ধনী, দরিদ্র নির্বিশেষে সর্ব সাধারণের পুজো বা এক কথায় মহা মিলন ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে । পাশাপাশি তিনি বলেন, এদিন অন্নপূর্ণা পুজোর দিন ঠাকুরের ভোগ খেতে তাদের পরিবারের লোকজনদের পাশাপাশি এলাকার এবং জেলা তথা রাজ্যের এমনকি দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রায় হাজার বিশেক মানুষ মুখার্জি বাড়ীতে আসেন । সবশেষে জয়দীপ বাবু রায়গুণাকর ভারতচন্দ্রের কথাতেই বলেন, মা অন্নপূর্ণার কাছে শুধু এই প্রার্থনাই জানাই যাতে জাতি, ধর্ম, ধনী, দরিদ্র নির্বিশেষে সবাই যেন দুধে ভাতে থাকতে পারেন । প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও করোনা সংক্রমণের জেরে শুধু মাত্র ধর্মীয় আচার মেনেই পুজো এবং অন্যান্য সমস্ত আচার অনুষ্ঠান এমনকি ভোগ বিতরণ কর্মসূচী করা হয়েছে । পাশাপাশি মুখার্জি পরিবারের তরফে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে মুখার্জি বাড়ির চারপাশে ও রাস্তায় করোনা সচেতনা সংক্রান্ত বিভিন্ন ফ্লেক্স, ব্যানার, স্যানেটাইজার গেট লাগানো হয়েছে । এবিষয়ে জয়দীপ বাবু বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশ জুড়ে করোনা সংক্রান্ত যে সচেতনতা চলছে তার কথা মাথায় রেখেই তারা গত বছ্রের ন্যায় এবছরও এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন । এদিন জয়দীপ বাবু বলেন মা অন্নপূর্ণার কাছে তার শুধু এটুকুই প্রার্থনা যাতে ভারতবাসী দ্রুত করোনা মুক্ত হয়ে আবার তাদের সবাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেন ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে