মগরা থানার পুলিশ ও ফ্রায়ার ব্রিগেডের সহযোগিতায় খুনি ষাঁড়কে ধরল বন দফতরের কর্মীরা ।

0
3

হুগলি জেলার চন্দ্রহাটি এলাকায় ষাঁড়ের গুঁতোয় মৃত্যু তিন জনের । পুলিশ সূত্রে জানা যায় আজ বেলার দিকে ওই‌ এলাকার বাসিন্দা লক্ষ্মি ভান্ডারির  বাড়ির ভিতরে আচমকা ঢুকে ষাঁড়টি গুঁতো মারে বছর চল্লিশের লক্ষ্মী ভান্ডারিকে । সঙ্গে সঙ্গে তিনি লুটিয়ে পড়লে এলাকার বাসিন্দারা তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যান চুঁচুড়া ইমামবাড়া সদর হাসপাতালে । হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে । স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে তার স্বামী তপন ভান্ডারি ত্রিবেণী টিসু কারখানায় কাজ করেন । তার এক ছেলে ও মেয়ে রয়েছে । এর আগেও এই এলাকায় ষাঁড়ের গুঁতোয় তিলক সাউ নামে বছর ষাটের এক ব্যাক্তির ও কমলি মাহাতো নামে অপর এক ব্যাক্তির মৃত্যু হয় । এদিনের ঘটনায় এলাকায় আতঙ্কের পাশাপাশি নেমেছে শোকের ছায়া । এদিনের এই ঘটনার পর ঘটনাস্থলে আসে মগরা থানার পুলিশ ও ফ্রায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা এবং চন্দ্রহাটি দুই নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরা । অবশেষে খবর দেওয়া হয় বন দফতরে । বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় বন দফতরে কর্মীরা ঘুম পাড়ানী ওষুধ দিয়ে ষাঁড়টিকে ধরে নিয়ে যান ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে